SELECT `treatments`.`page_banner`, `treatments`.`title_text`, `treatments`.`h1_tag`, `treatments_lang`.`title`, `treatments_lang`.`content` FROM `treatments_lang` INNER JOIN `treatments` ON `treatments`.`treatment_id` = `treatments_lang`.`treatmentid` WHERE `treatments`.`slug` = 'laparoscopic-hernia-repair' AND `treatments`.`status_ind` = 1 AND `treatments_lang`.`language_id` = '5' AND `treatments_lang`.`status_ind` = 1 ManipalHospitals  
banner-img

ল্যাপারোস্কোপিক হার্নিয়া রিপেয়ার

ল্যাপারস্কোপিক হার্নিয়া রিপেয়ার একটি মিনিমানি ইনভেসিভ প্রক্রিয়া যা ব্যবহার করে একটি হার্নিয়া সারিয়ে তোলা হয়। অন্ত্রের মত একটি দেহযন্ত্রের ছোট অংশ প্রসারিত হয়ে পেট অস্বাভাবিক স্ফীত করে তোলে। হার্নিয়া রিপেয়ার করতে হয় যদি: 
o    হার্নিয়ার জন্য যন্ত্রণা ও অস্বস্তিবোধ হয়
o    আপনার প্রতিদিনের কাজে বাধা সৃষ্টি করে।
o    আকারে বেড়ে ওঠে।
o    অন্ত্রে বাধা তৈরি হয় বা ফাঁস লেগে যায়, যেক্ষেত্রে এমার্জেন্সি চিকিৎসার প্রয়োজন হয়।
প্রক্রিয়াটি আগে থেকে এবং আপনার সুবিধা অনুযায়ী প্ল্যান করা যায়। সার্জারির এক সপ্তাহ আগে থেকে আপনাকে ব্লাড থিনার বন্ধ করে দিতে বলা হবে। এই প্রক্রিয়া জেনারেল অ্যানেস্থেশিয়া প্রয়োগ করে সম্পন্ন করা হয়। শিরার মাধ্যমে ফ্লুইড ও অ্যান্টিবায়োটিক প্রযুক্ত হয়। প্রক্রিয়ার সময়, আক্রান্ত স্থানের কাছে একাধিক ছোট চেরাই করা হয়। কাজের স্থান বাড়ানোর জন্য কার্বন ডাইঅক্সাইড দিয়ে পেটের গহ্বর ফাঁপানো হয়। হার্নিয়া ঠিক করতে ছোট কাটা জায়গার মধ্যে দিয়ে একটি ল্যাপারোস্কোপ ও অন্যান্য সরঞ্জাম ঢোকানো হয়। দেহযন্ত্রের হার্নিয়ায় আক্রান্ত অংশকে নিজের স্থানে বসানো হয় এবং জাল ব্যবহার করে দুর্বল স্থানে জুড়ে দেওয়া হয়। পেট চুপসে দিয়ে কাটা স্থান বন্ধ করা হয় ও ড্রেসিং করে দেওয়া হয়। প্রক্রিয়াটি সম্পূর্ণ হতে এক ঘণ্টা সময় লাগে। সার্জারির পরে পেটে ব্যাথা ও অস্বস্তি হওয়া স্বাভাবিক ব্যাপার। ব্যাথা কমানোর জন্য আপনাকে ওষুধ দেওয়া হতে পারে। কিছু দিনের মধ্যেই, আপনি স্বাভাবিক কাজে ফিরে যেতে পারবেন। নিয়মিত ফলো-আপ করবেন যাতে আরোগ্যলাভের প্রক্রিয়া নিরীক্ষণে রাখা যায়।
 

Call Us